অবশেষে পরিচালনায় পূর্ণিমা

42

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোকিত অভিনেত্রী দিলারা হানিফ পূর্ণিমা। চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি মডেলিং, উপস্থাপনা এমনকি বিভিন্ন রিয়েলিটি শোর বিচারক হিসেবেও দেখা যায় তাকে। কিন্তু এত কিছুর পরও মনের নিভৃত কোণে শুরু থেকেই একটা স্বপ্ন বুনে আসছিলেন এই তারকা। নিজের মনের মতো করে চলচ্চিত্র বানানোর স্বপ্ন। দেরিতে হলেও দীর্ঘদিনের সেই লালিত স্বপ্নকে স্পর্শ করতে চলেছেন পূর্ণিমা। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী বছরের শুরুতেই নতুন পরিচয় যোগ হবে তার ক্যারিয়ারে।

সম্প্রতি যায়যায়দিনের সঙ্গে আলাপকালে পূর্ণিমা বলেন, ‘চলচ্চিত্রটির নাম কিংবা চিত্রনাট্য এখনো সম্পন্ন হয়নি। তবে গল্পটা মাথায় ভেবে রেখেছি। হাতে কিছু কাজ আছে, এসব আগে শেষ করতে চাই। তারপর আমার স্বপ্নের প্রজেক্টে হাত লাগাব। আপাতত এর বেশি বলতে চাচ্ছি না।’

তবে জানা গেছে, চিত্রনাট্যের কাজ অনেকদূর এগিয়েছেন পূর্ণিমা। দীর্ঘদিনের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের নানা অভিজ্ঞতার মিশেলে এ ছবিটি নির্মাণ করতে চাইছেন তিনি। তাই ঘটা করে আপাতত কিছুই জানাতে রাজি নন এ অভিনেত্রী।

এদিকে স্বামী, সন্তান ও সংসার নিয়ে ব্যস্ত থাকায় আগের মতো বড় পর্দায় নিয়মিত নন তিনি। তবে সম্প্রতি একই পরিচালকের দুটি ছবিতে কাজ করছেন পূর্ণিমা। নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূলের ‘জ্যাম’ ও ‘গাঙচিল’ নামের দুটি ছবিতে অভিনয় করছেন তিনি। এ বিষয়ে পূর্ণিমা বলেন, ‘জ্যাম’ ও ‘গাঙচিল’ ছবির পরিচালক একজনই। তাই শুটিংয়ের শিডিউল নিয়ে কোনো ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে না। দুটোই একসঙ্গে চালিয়ে নেয়া যাচ্ছে।’ অপরদিকে দীর্ঘদিন পর শুটিং নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত নায়িকা নিজেও। জানা গেছে, ‘জ্যাম’ ছবিটির কিছু অংশ গত বছর দৃশ্যায়ন করা হয়েছে। বাদ-বাকি কাজ এ মাসের ১৫ তারিখ থেকে শুরু হবে। চলবে দশ-বারো দিন। প্রয়াত চিত্রনায়ক মান্নার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান কৃতাঞ্জলী কথাচিত্রের ব্যানারে নির্মাণ হচ্ছে ছবিটি। এটি পরিচালনা করছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল। এতে পূর্ণিমার বিপরীতে অভিনয় করছেন চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ। জ্যাম ছবির দৃশ্যায়নের পরেই শুরু হবে গাঙচিল ছবির শেষ কাজ। এ ছবিতে পূর্ণিমার বিপরীতে কাজ করছেন ফেরদৌস। গাঙচিল ছবিতে পূর্ণিমাকে দেখা যাবে একজন এনজিও কর্মী হিসেবে ও ফেরদৌসকে দেখা যাবে সাংবাদিক চরিত্রে। মূলত নোয়াখালীর সুবর্ণচরের বাসিন্দাদের জীবনের নানা ঘটনাকে উপজীব্য করে এ ছবিটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন স্টেজ শো, কর্পোরেট অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা ও টেলিভিশন অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় নিয়মিত আছেন এ অভিনেত্রী।

এবারের কোরবানি ঈদেও তার অভিনীত একটি নাটক দর্শক মহলে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। নাটকটিতে তাকে ছোট পর্দার অভিনেতা জিয়াউল হক অপূর্বের বিপরীতে দেখা গেছে।

ঢাকাই চলচ্চিত্রে পূর্ণিমার পথচলা শুরু হয় জাকির হোসেন রাজুর ‘এ জীবন তোমার আমার’ সিনেমার মাধ্যমে। এরপর কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না’ সিনেমায় দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। পূর্ণিমা অভিনীত সুপারহিট চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে লাল দরিয়া, মনের মাঝে তুমি, মেঘের পরে মেঘ, সুভা ও ভালোবাসা।

Facebook Comments